Dainik Sotter Kontho- দৈনিক সত্যের কণ্ঠ
Dainik Sotter Kontho - দৈনিক সত্যের কণ্ঠ
ঢাকাWednesday , 7 June 2023
  • অন্যান্য

দ্বিতীয় বিয়ের সম্মতি না দেওয়ায় স্ত্রী’কে মারধরের অভিযোগ

প্রতীকী ছবি

দ্বিতীয় বিয়ের সম্মতি আদায়ে স্ত্রী’কে বেধড়ক মারপিট করেছে পাষÐ স্বামী । পরে নিজেই স্ত্রী’কে হাসপাতালে ভর্তি করে সে । আহত স্ত্রীর জ্ঞান ফিরলে আবারও মারপিটের হুমকি দিয়ে হাসাপাতাল থেকে ছিনিয়ে নেয় ৩ বছরের শিশুকে ।

শুক্রবার সকালে দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এই ঘটনা ঘটে ।

বোধবার( ৬ জুন) জানা যায়, দোয়ারাবাজার উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের গিরিশনগর গ্রামের একরাম আলীর মেয়ে নাসিমা বেগমের বিয়ে হয় ছাতক উপজেলার নোয়ারাই ইউনিয়নের উলুরগাঁও গ্রামের সমর আলীর ছেলে কামরুল হকের সঙ্গে । ২০১১ সালে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হওয়ার পর থেকে স্ত্রী’কে নানাভাবে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছে বখাটে স্বামী । তাদের তিন সন্তান রয়েছে ।
সম্প্রতি কামরুল হক ছাতকের জাউয়াবাজার এলাকা থেকে এক মেয়েকে নিয়ে আসে এবং বেশ কিছুদিন ধরেই বিয়ের সম্মতিতে কাগজে দস্তখত দিতে চাপ সৃষ্টি করে । নাসিমা বেগম তা মেনে না নিয়ে দস্তখত না করলে প্রতিনিয়ত নির্যাতন করতে থাকে । গত মঙ্গলবার রাতে দস্তখতের জন্য চাপ দিলে নাসিমা বেগম অস্বীকৃতি জানান । ওইদিন রাতে তার ওপর চালানো হয় অকথ্য নির্যাতন । একপর্যায়ে বেধড়ক মারপিটে অজ্ঞান হয়ে পড়লে স্বামী কামরুল স্ত্রী’কে দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে । দুইদিন পর( শুক্রবার) হাসপাতালে এসে জোরপূর্বক নাসিমার কাছ থেকে ৩ বছরের শিশুকে ছিনিয়ে নিয়ে যায় । এসময় সে বিয়ের সম্মতি না দিলে খবর আছে বলে হুমকিও দেয় ।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিন সন্তানের জননী নাসিমা বেগম কান্নায় ভেঙে পড়ে বলেন, আমার স্বামী দীর্ঘদিন থেকে দ্বিতীয় বিয়ে করতে উঠে পড়ে লেগেছে । আমি সম্মতি না দেওয়ায় আমাকে নানাভাবে মারধর ও নির্যাতন করে । আমার পিঠ দেওয়ালে ঠেকে গেছে, আর সহ্য করতে পারছি না । এখন আমি তার কবল থেকে বাঁচতে চাই । শুক্রবার সকালে হাসপাতালে এসে কোলের সন্তানকে নিয়ে গেছে । আমি সুস্থ হয়ে আইনী আশ্রয় চাইবো ।

নাসিমা বেগমের মামা সুরমা ইউপি সদস্য মাসুদ মিয়া বলেন, আমার ভাগ্নি গুরুতর আহত হয়ে দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছে । এর আগেও কামরুল এ ধরণের ঘটনা ঘটিয়েছে । আমরা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছি ।

দোয়ারাবাজার থানার ওসি দেব দুলাল ধর বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ করা হলে আমরা বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেবো ।