Dainik Sotter Kontho- দৈনিক সত্যের কণ্ঠ
Dainik Sotter Kontho - দৈনিক সত্যের কণ্ঠ
ঢাকাFriday , 1 December 2023
  • অন্যান্য

জয়পুরহাটে নিজ শয়নকক্ষে মিললো বৃদ্ধের গলা কাটা লাশ

জয়পুরহাট সংবাদদাতা
December 1, 2023 2:29 pm । ১০৪ জন

জয়পুরহাটের কালাইয়ে সৈয়দ আলী আকন্দ (৭০) নামের এক বৃদ্ধকে নিজ শয়নকক্ষে গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে পুলিশ সকালে ঘটনাস্থলে এসে ওই বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

শুক্রবার রাতে কালাই উপজেলার পুনট ইউনিয়নের শিকটা গ্রামে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত সৈয়দ আলী আকন্দ ওই গ্রামের প্রয়াত মোতরাজ আলীর ছেলে।

নিহতের স্বজন, এলাকাবাসি ও পুলিশ সূত্রে জানা যায় যে সৈয়দ আলী আকন্দ গতরাতে এশার নামাজ পড়ে খেয়ে ঘুমিয়ে পরেন। ফজরের নামাজের সময় বড় ছেলে তৈয়ব আলী বাবার শয়ন কক্ষে এসে দেখেন তার বাবা রক্তাক্ত অবস্থায় বিছানায় পরে আছেন। ধারালো কোন অস্ত্র দিয়ে গলার বাম পাশে স্টেপ করা হয়েছে। সে সময় তার চিৎকারে প্রতিবেশিরা ছুটে আসেন। পরে বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করলে তারা ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। জমিজমা সংক্রান্ত শত্রুতার জের ধরে অথবা তার বাড়িতে রাখা টাকা বা দলিল চুরিকে কেন্দ্র করে এ হত্যাকান্ড সংঘটিত হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

শিকটা এলাকার সাবেক চকিদার আব্দুর রাজ্জাক ও স্থানীয় ইউপি সদস্য মোরশেদুল হক জানান, ১৫ বছর আগে সৈয়দ আলী আকন্দের স্ত্রী মারা যায়। এরপর আর বিয়ে করেননি। তিনি প্রায় ১৫/২০ বিঘা জমি আবাদ করেন। বাড়িতে ৬/৭টি গরু পালন করেন। তার অর্জিত আয়ের কোন টাকা তিনি ব্যাংকে রাখেন না। বাড়িতেই ৪০/৫০ লাখ টাকা সব সময় থাকতো। তার ছেলেরাও প্রতিষ্ঠিত। এক ছেলে ঢাকায় বেসরকারি কোম্পানিতে চাকরি করেন। ওই ছেলের স্ত্রীও ব্যাংকার। হঠাৎ শুক্রবার রাতে কে বা কারা তার ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলায় স্টেপ করে হত্যা করে পালিয়ে যায়। টাকা অথবা জমির দলিল চুরি করতেই এই হত্যাকান্ড ঘটে থাকতে পারে বলে তাদের ধারণা।

কালাই থানার অফিসার ইনচার্জ ওয়াসীম আল বারী বলেন, গত রাতে বড় ছেলের বাড়িতে খেয়ে সৈয়দ আলী তার নিজের বাড়িতে যান। ওই বাড়িতে তিনি একাই থাকতেন। রাতের কোন এক সময়ে দূবৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলার বাম পাশে স্টেপ করে। এতে প্রচন্ড রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়। স্থানীয় ব্যক্তিদের মাধ্যমে খবর পেয়ে উপজেলার শিকটা গ্রামে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।